1. [email protected] : বাংলার কন্ঠ প্রতিবেদক : বাংলার কন্ঠ প্রতিবেদক
  2. [email protected] : বাংলারকন্ঠ : বাংলারকন্ঠ
  3. [email protected] : বাংলারকন্ঠ.কম : বাংলারকন্ঠ.কম
বুধবার, ০৪ অগাস্ট ২০২১, ১১:৩২ পূর্বাহ্ন

টাঙ্গাইল জেলা সমিতিকে ওয়ালটনের ১০ লাখ টাকা অনুদান

  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ২৯ জুন, ২০২১
  • ৩৩ বার দেখা হয়েছে
Walotn 3

ঢাকাস্থ টাঙ্গাইল জেলা সমিতিকে ১০ লাখ টাকার আর্থিক অনুদান দিয়েছে ওয়ালটন। করপোরেট সোশ্যাল রেসপনসিবিলিটি বা সিএসআর কার্যক্রমের আওতায় ওই অনুদান দেওয়া হয়। ঢাকায় সমিতির একটি ভবন নির্মাণে ব্যয় হবে ওই অর্থ।

রোববার (২৭ জুন, ২০২১) রাজধানীর বসুন্ধরায় ওয়ালটন করপোরেট অফিসে ১০ লাখ টাকার চেক হস্তান্তর করে ওয়ালটন কর্তৃপক্ষ। ওয়ালটনের পক্ষ থেকে ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর এমদাদুল হক সরকার এবং ওয়ালটনের ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিএসআর কমিটির সভাপতি হুমায়ুন কবীর সমিতির নেতৃবৃন্দের হাতে চেক তুলে দেন।

এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটনের নির্বাহী পরিচালক শাহজাদা সেলিম, ঢাকাস্থ টাঙ্গাইল জেলা সমিতির সভাপতি ইব্রাহীম হোসেন খান (সাবেক সচিব) ও সাধারণ সম্পাদক বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব মনছুরুল আলম হীরা এবং ওয়ালটনের সিএসআর অ‌্যান্ড ওয়েল ফেয়ার বিভাগের ডেপুটি ডিরেক্টর সাফায়েত হুদাসহ আরও অনেকে।

ওয়ালটন সিএসআর কমিটির সভাপতি হুমায়ুন কবীর জানান, দেশব্যাপী ব্যাপকভাবে সিএসআর কার্যক্রম পরিচালনা করছে ওয়ালটন। সব ধরনের খেলাধুলার উন্নয়নে সবচেয়ে বড় পৃষ্ঠপোষক ওয়ালটন। প্রতি বছর লাভের একটি অংশ সরকারের শ্রমিক কল্যাণ তহবিলে দেওয়া হচ্ছে। কর্মীরা নিয়মিত পাচ্ছেন লভ্যাংশ। চলতি বছরের মার্চে মুক্তিযোদ্ধাদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে টাঙ্গাইলে বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিকেন্দ্র তৈরিতে সহযোগিতা করেছে ওয়ালটন। ভবন নির্মাণে টাঙ্গাইল জেলা সমিতিকে আর্থিক অনুদান দিতে পেরে আনন্দিত ওয়ালটন পরিবার।

অনুদানের অর্থ গ্রহণ করে টাঙ্গাইল জেলা সমিতির সভাপতি ইব্রাহীম হোসেন খান বলেন, ‘ওয়ালটন দেশীয় প্রতিষ্ঠান। ইলেকট্রিক্যাল ও ইলেকট্রনিক্স পণ্য তৈরির এক বৃহৎ প্রতিষ্ঠান। দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে এগিয়ে আসছে ওয়ালটন। পৃষ্ঠপোষকতা করছে বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রমে। প্রত্যাশা করছি পৃষ্ঠপোষকতার এই ধারা অব্যাহত থাকবে।’

উল্লেখ্য, করোনাকালে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে সামর্থ‌্য অনুযায়ি অবদান রাখছে ওয়ালটন। শিক্ষা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান, এতিমখানাসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে নিয়মিত সহযোগিতা দেওয়া হচ্ছে। বিধবা-বয়স্ক ভাতাসহ দুস্থ ও দরিদ্র মনুষের জন্য প্রাথমিক স্বাস্থ্য সেবা এমনকি আর্থিক সহযোগিতা অব্যাহত রয়েছে। সাভারের রানা প্লাজা ট্রাজেডি থেকে করোনাকালে সহযোগিতার হাত প্রসারিত করেছে ওয়ালটন। কোভিড-১৯ মোকাবেলায় দেশের প্রায় ৪০০টি ওয়ালটন প্লাজা এবং ১৭০০০ এর বেশি এক্সক্লুসিভ ডিস্ট্রিবিউটর, ডিলার ও সাব-ডিলারের মাধ্যমে সারাদেশে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়া ‘আমরা ভেজালমুক্ত খাদ্য চাই’ -এর সব কর্মকাণ্ডের পৃষ্ঠপোষকতা করছে ওয়ালটন।

শেয়ার দিয়ে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ