1. [email protected] : বাংলারকন্ঠ : বাংলারকন্ঠ
  2. [email protected] : বাংলারকন্ঠ.কম : বাংলারকন্ঠ.কম
  3. [email protected] : nayan : nayan
সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ০৯:১১ অপরাহ্ন

স্ত্রীকে হত্যা করে পুলিশ ডাকলেন স্বামী

  • আপডেট সময় : রবিবার, ১১ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
  • ১৫ বার দেখা হয়েছে

জেলা প্রতিনিধি, বরিশাল : বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলায় পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রী বীথি সমাদ্দারকে (৩০) হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে স্বামী সুমন রায়কে (৩৩) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সুমন নিজেই জাতীয় জরুরী সেবা ৯৯৯ নম্বরে কল করে পুলিশ ডাকেন।

রোববার (১১ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার উদয়কাঠি ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের পিজিএস এলাকায় ঘটনাটি ঘটে। বানারীপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাইনুল ইসলাম এতথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মারা যাওয়া বীথি গোপালগঞ্জের কোটালিপাড়া উপজেলার নয়াকান্দি গ্রামের বাসুদেব সমাদ্দারের মেয়ে। গ্রেপ্তার সুমন বানারীপাড়া উপজেলার উদয়কাঠি ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক সদস্য সুধীর রায়ের ছেলে। পাঁচ বছর আগে সুমন ও বীথির বিয়ে হয়।

স্থানীয়রা জানান, আজ সকালে সুমনের সঙ্গে তার স্ত্রী বীথির কথা কাটাকাটি হয়। এসময় সুমন হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে বীথিকে গুরুতর আহত করেন। বিথীকে প্রথমে বানারীপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে তাকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে বিকেল ৪টার দিকে বীথি মারা যান।

নিহতের স্বজন ও প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে উদয়কাঠি ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য জাকির হোসেন বলেন, খবর শুনে ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম। পরিবারের লোকজন বলেছে, বাসায় সুমন ঘুমিয়ে ছিলেন। এক পর্যায়ে ঘরের মধ্য থেকে চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা ছুটে যান। তখন প্রতিবেশীদের উদ্দেশ্যে সুমন বলেন, ‘কাম হইয়া গেছে। কেউ ভেতরে আসবা না।’ এ কথা বলে সুমন ৯৯৯ নম্বরে কল করে পুলিশকে বিষয়টি জানান। পরে আমরাও পুলিশে খবর দিয়েছিলাম।

বানারীপাড়া মডেল থানার এসআই শফিকুল বলেন, স্বামী ও স্ত্রীর মধ্যে তর্ক হয়েছিল। এরই এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে হাতাহাতি হয়। ক্ষিপ্ত হয়ে সুমন তার স্ত্রীকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেন।

বানারীপাড়া থানার ওসি মাইনুল ইসলাম বলেন, দাম্পত্য কলহের জেরে হত্যাকাণ্ডটি ঘটেছে। ঘটনার পর নিহতের স্বামী নিজেই ৯৯৯ নম্বরে কল করে হত্যার কথা জানিয়ে আত্মসমর্পণের কথা বলেন। পরে পুলিশ গিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে। এ ঘটনায় নিহতের ভাই বাদী হয়ে মামলা করেছেন।

শেয়ার দিয়ে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ