1. [email protected] : বাংলারকন্ঠ : বাংলারকন্ঠ
  2. [email protected] : বাংলারকন্ঠ.কম : বাংলারকন্ঠ.কম
  3. [email protected] : nayan : nayan
রবিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৭:৫২ পূর্বাহ্ন

শীতে ঘি খান, দেখুন যাদু!

  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ১০ নভেম্বর, ২০২৩
  • ২১ বার দেখা হয়েছে

লাইফস্টাইল ডেস্ক : দেশে এখন কুয়াশা ঘেরা প্রকৃতি আর ভোরের শিশির জানান দিচ্ছে শীত আসছে। অর্থাৎ ঘি খাওয়ার উপযুক্ত সময় চলে এসেছে।

ভারতের প্রখ্যাত পুষ্টিবিদ সন্ধ্যা গুগনানির মতে, ঠান্ডা আবহাওয়া ঘি খাওয়ার উপযুক্ত সময়। এ সময় এটি সহজে হজম হয় ও শরীর গরম রাখে।

বিস্ময়কর কিছু গুণ থাকায় শারীরিক সুস্থতার জন্য ঘি দারুণ উপকারী। দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখার পাশাপাশি পেশি সুগঠিত রাখতে ঘি কার্যকর। এ ছাড়া ত্বক শুষ্ক হয়ে যাওয়া ঠেকাতে পারে ঘি। ঘিয়ের আরও নানা স্বাস্থ্য উপকারিতা রয়েছে।

তবে ঘি যদি খাঁটি না হয়, তাহলে কোনো স্বাস্থ্য উপকারিতাই আপনি পাবেন না। বরং ভেজাল ঘি শরীরের জন্য হিতে বিপরীত হতে পারে। কিন্তু কীভাবে চিনবেন খাঁটি ঘি? ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্রতিবেদন অনুসারে চলুন জেনে নেওয়া যাক খাঁটি ঘি চেনার সহজ কিছু উপায়।

  • হিট টেস্ট: একটি প্যানে ১ চামচ ঘি নিয়ে গরম করুন। যদি ঘি তাৎক্ষণিকভাবে গলে যায় এবং গাঢ় বাদামি রঙে পরিণত হয়, তবে এটি খাঁটি ঘি। যদি ঘি গলতে সময় নেয় এবং হলদে হয়ে যায়, তাহলে বুঝবেন, ঠকেছেন আপনি।
  • পাম টেস্ট: ১ চা চামচ ঘি নিন হাতের তালুতে। ঘি যদি ত্বকের সংস্পর্শে আপনাতেই গলে যায় তবে বুঝবেন ঘি বিশুদ্ধ। এর ব্যতিক্রম হলে ওই ঘি এড়িয়ে চলুন।
  • ডাবল-বয়লার মেথড চেক: একটি কাচের বয়ামে সামান্য পরিমাণ ঘি নিন। একটি গরম পানির পাত্রে বয়ামটি বসিয়ে গরম করুন। গলে গেলে ফ্রিজে রেখে দিন বয়াম। ঘি যদি এক লেয়ারে জমে তাহলে বুঝবেন খাঁটি ঘি। কিন্তু যদি দুই লেয়ারে জমে, তা হলে বুঝবেন ঘিয়ের সঙ্গে নারিকেল তেল মেশানো হয়েছে। এক্ষেত্রে ঘি এবং নারকেল তেলের দুটি আলাদা লেয়ার দেখতে পাবেন।
  • আয়োডিন টেস্ট: অল্প পরিমাণ ঘি গলিয়ে তার মধ্যে দুই ফোঁটা আয়োডিন সলিউশন দিন। আয়োডিন যদি বেগুনি রঙ ধারণ করে তাহলে বুঝবেন ঘি খাঁটি নয়।
  • বোতল টেস্ট: এক চামচ ঘি গলিয়ে একটি স্বচ্ছ বোতলে রাখুন। এবার এতে এক চিমটি চিনি দিন। এরপর বোতলের মুখ বন্ধ করে খুব জোরে জোরে ঝাঁকান। ৫ মিনিটের জন্য বোতলটি স্থির অবস্থায় রেখে দিন। এরপর খেয়াল করুন বোতলের নিচে লাল রঙের আস্তরণ পড়েছে কি না। যদি লাল রঙের আস্তরণ পড়ে, তাহলে বুঝবেন ঘিয়ে ভেজাল মেশানো আছে।
  • রঙ দেখুন: খাঁটি ঘি সাধারণত হালকা সোনালি হলুদ রঙের হয়। তবে ঘি যদি অতিরিক্ত হলুদ বা উজ্জ্বল হলুদ রঙের দেখায়, তাহলে তাতে ভেজাল থাকতে পারে।
  • ফ্রিজে রেখে দেখুন: খাঁটি ঘি ফ্রিজে রাখলে শক্ত হয়ে যায়। কিন্তু যদি ফ্রিজে থেকেও ঘি তরল হয়ে থাকে, তাহলে তা ভেজাল হতে পারে। তাছাড়া, শিশিতে জমাট বাধা ঘি একই রঙের হলে বুঝবেন ঘি খাঁটি। ঘিয়ে ভেজাল থাকলে আলাদা আলাদা স্তরে আলাদা আলাদা রং থাকবে।

শেয়ার দিয়ে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ